য়িন-য়িয়াঙ – এক গূঢ় প্রতীকের কথা

প্রতীক নিয়ে একটা বই প্রায় লিখে ফেলেছিলাম, কিন্তু তথ্যভাণ্ডারের এতো দুর্লভ অবস্থা, আর নিজের জ্ঞানের পরিধিও এতো কম যে, শেষ করতে পারিনি। তারই একটি অধ্যায় আমরা আজকে দেখার চেষ্টা করবো ইনশাল্লাহ। এই লেখাটি প্রথমত তৈরি করা হয়েছিল একটি শিক্ষার্থী সম্মেলনের জন্য অভিভাষণ হিসেবে, পরে অবশ্য তা আর দেয়া হয়ে উঠেনি। দেখা যাক, কেমন লাগে আপনাদের… একটা প্রতীক যে কত রকম গূঢ় অর্থ প্রকাশ করতে পারে, তা-ই আমরা দেখার চেষ্টা করবো এখন, আর এজন্য আমরা একটা বিশেষ প্রতীককে নিয়েই আলোচনা করবো। বিজ্ঞানী [স্যার] আইয্যাক নিউটনের গতির (motion) তৃতীয় সূত্রটি হচ্ছে- To every Action there is always opposed an equal Reaction: or…

বিস্তারিত

স্মার্টফোনকে বানিয়ে ফেলুন জিপিএস ডিভাইস

আপনার মোবাইলে শুধু জিপিএস অপশনটা থাকা চাই… ইন্টারনেট সংযোগ কিংবা মোবাইল নেটওয়ার্কও দরকার নেই। এখন অ্যান্ড্রয়েডচালিত স্মার্টফোনের অভাব নেই, আর অ্যান্ড্রয়েড যেহেতু গুগলের অপারেটিং সিস্টেম, তাই গুগলের গুগল ম্যাপ্‌স অ্যাপ্‌সটি এতে শুরু থেকেই ইন্সটল করে দেয়া থাকে। আমরা খুব গদগদ হয়ে সেই অ্যাপ্‌সটা খুলে আবিষ্কার করি, ইন্টারনেট ছাড়া আমরা অচল। আর তাই আমরা অনলাইন না হলে ম্যাপ ব্যবহারের চিন্তাও করতে পারি না। কিন্তু আজ এমন একটি অ্যাপ্‌সের কথা বলছি, যা আমার ধারণা আমূল বদলে দিয়েছিল। আমাদের স্মার্টফোনগুলো যে একেকটা স্বয়ংসম্পূর্ণ জিপিএস ডিভাইস বা জিপিএস ট্র্যাক করার যন্ত্র, তা প্রথম বুঝতে পেরেছিলাম, সহকর্মী আরিফুল হক শামীম ভাইয়ের খুঁজে বের করা এই…

বিস্তারিত

আরবি ক্যালিগ্রাফি – ধর্ম নয়, ধর্মধ্বংস

প্রতিবছর বিভিন্ন সংগঠন ক্বোরআনের আয়াত দিয়ে লেখা সুন্দর সুন্দর ক্যালিগ্রাফি দিয়ে ক্যালেন্ডার বের করে, একজন মুসলমান হিসেবে ঘরে শেয়াল-কুকুরের ছবি ঝোলানোর চেয়ে এরকম একটা ক্যালিগ্রাফি করা ক্বোরআনের আয়াত সম্বলিত ক্যালেন্ডার ঝোলানো অনেকেই পছন্দ করেন… আমি করি না। ক্যালিগ্রাফি মানে আঁকাবাঁকা করে সুন্দর করে হরফগুলো লেখা, এটা যেকোনো ভাষায়ই হতে পারে, ইংরেজি, বাংলা, হিব্রু – এরকম প্রায় সকল ভাষাভাষিরাই নিজের ভাষার হরফগুলো সুন্দর থেকে সুন্দরতর করে লেখাকে হরফবিদ্যা বা টাইপোগ্রাফির অংশ করে নিয়েছে। তেমনি আরবিতেও ক্যালিগ্রাফি করা হয়। আরবিতে ক্যালিগ্রাফি করে ক্বোরআনের আয়াত (বাক্য কিংবা বাক্যসমষ্টি) লেখার ইতিহাস কবেকার, সে জানি না, ঘাঁটাঘাটির ইচ্ছেও নেই, তবে সেটা যে ইসলাম আসার পরে,…

বিস্তারিত

রাবার ব্যান্ড

“টানলে বাড়ে” বলুন তো সেটা কী? উত্তরটা হলো ‘রাবার ব্যান্ড’। এই রাবার ব্যান্ড আমরা বিভিন্নভাবে চিনে থাকি। মেয়েরা রাবার ব্যান্ড দিয়ে চুল বাঁধেন, রাবার ব্যান্ড দিয়ে ব্যাংক টাকার বান্ডিল বেঁধে দেয়। রাবার ব্যান্ডের বিশেষত্ব হলো, একে টেনে অনেক বড় করলেও, ছেড়ে দিলে আবার তা আগের অবস্থায় ফিরে আসে। নমনীয় এই বিশেষ বস্তুটি কিভাবে তৈরি হয়? “রাবার ব্যান্ড বানানোর ব্যাপারটা অনেকটা পাউরুটি বানানোর মতোই।” আরকানসাসের (Arkansas) ‘অ্যালায়্যান্স রাবার কোম্পানি’ তাদের ওয়েবসাইটে এমনটাই লিখে রেখেছে। শুনে মনে হচ্ছে, আমাদেরকে রাবার চিবানোর জন্য পাউরুটির মতোই জিহ্বা বের করে উউম্‌ম বলতে হবে- যেন বেক করা রাবারের সুগন্ধ কতইনা স্বাদের! আসলে অ্যালায়্যান্স সেটা বুঝাতে চাচ্ছে…

বিস্তারিত

আবার, বারবার নভোথিয়েটার

ভুশ করে অন্ধকার চিরে বেরিয়ে এলো বিশাল গোলকটা। গোল্ডিলক অঞ্চলের এক বাসিন্দা। একটু দূরে যেতেই আমরা তার সূর্যটাকে দেখতে পেলাম। এবারে দেখলাম তার বাসযোগ্য একটা তাপমাত্রা কিভাবে আমরা এই দূর পৃথিবী থেকেই মাপতে পারি… কিন্তু এদিকে যে আমরা দুজন গোল্ডিলক অঞ্চলের বাইরে এসে প্রচণ্ড শ্বৈত্যে জমে যাচ্ছি… নভোথিয়েটারে গিয়েছিলাম অনেকদিন আগে, মনে পড়ছে না কবে, কিন্তু বছর আটেক হয়ে যাবে নিশ্চিত। আবারও গেলাম সেখানে, এবারে সঙ্গে গিন্নীকে নিয়ে…। কী এই নভোথিয়েটার? কী হয় এখানে? কেন এর জন্ম? দেখার আছে কিছু? …সবই একএক করে জানবো আমরা…। নভোথিয়েটার অবস্থানগতভাবে ঢাকার তেজগাঁও-এ পড়েছে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের কাছেই, আগে যেখানে র‍্যাংগ্‌স ভবন ছিল, সেই মোড়ে…

বিস্তারিত

ইউনিকোড বাংলা স্ক্রিপ্ট নিয়ে একজন রিশিদা

ইউনিকোড বাংলা স্ক্রিপ্ট নিয়ে বেশ সুন্দর আর গোছানো কাজ করেছেন Rishida। তাঁর কাজগুলো পাওয়া যাবে তাঁর নিজের ওয়েবসাইটে^। বাংলা স্ক্রিপ্টিং নিয়ে তাঁর লেখা নিচের পোস্টগুলো বেশ সমৃদ্ধ: http://rishida.net/scripts/bengali/ http://rishida.net/scripts/block/bengali কে এই রিশিদা? তাঁর একটি সাক্ষাৎকার সংগ্রহ করে দিয়েছেন শাবাব মুস্তাফা, পাওয়া যাবে নিচের লিংকে: http://www.digital-web.com/articles/richard_ishida/ এতটুকুতো অন্তত পরিষ্কার, তাঁর পুরো নাম Richard Ishida। বাকিটা ঐ সাক্ষাৎকার আর তাঁর নিজের সাইট আর কাজগুলো থেকে জেনে নেয়া যেতেই পারে। শ্রদ্ধা জানাই তাঁর কাজের প্রতি… (Kudos to his works for Bengali (Bānglā) ) -মঈনুল ইসলাম wz.islam@gmail.com

বিস্তারিত

ঈশ্বর ধারণা

বিজ্ঞানকে জিজ্ঞেস করলে বলবে, “ঈশ্বর বলে কেউ আছেন কি নেই, তা আমি জানি না।” – বিজ্ঞান “আছে”ও বলবে না, “নেই”ও বলবে না – অর্থাৎ বিজ্ঞান এক্ষেত্রে আস্তিকও না, নাস্তিকও না।

কিন্তু কেন টানা গ্রীষ্মের দাবদাহের পরে কোনো এক শুক্রবারেই (মসজিদে মসজিদে ক্ষমাপ্রার্থণামূলক বৃষ্টির জন্য দোয়ার পরেই) বৃষ্টি দিয়ে ঈশ্বর তাঁর নিজের অস্তিত্ব জানান দিবেন?

কিন্তু কেন কোন এক শরতে, দূর্গা দেবীর পৃথিবীতে আগমনের দিন ভূমিকম্প হওয়ার পরে মুন্নী সাহা বললেন, এবার দেবী “দোলায় চড়ে এসেছেন”, আর সেজন্যেই ভূমিকম্প হয়েছে। (মুন্নী সাহার ব্যক্তিগত বাজে পারফর্মেন্সের সাথে একে মেলানো ভুল হবে)

সামথিং ইয রিয়্যালী ফিশী!
বিজ্ঞানকে বোধহয় এখন নোয়েটিক্স-এর দিকে একটু গভীর নজর দিতে হবে…


সিলেটি ফোকলোর: নুযি ‘কইন্নার কিচ্চা

এক ছিল বাদশাহ, আর তাঁর এক ছেলে ছিল। সে ছিল মুসলমান আর তার এক বন্ধু ছিল হিন্দু, গোলাপ রাজা ছিল তার নাম। তারা দুজনে সারাক্ষণ পাশা খেলায় মেতে থাকতো। খেলার সময় একদিন হঠাৎ গোলাপ রাজা প্রস্তাব দিয়ে বসলো, “যে জিতবে, অর্থাৎ আমি যদি জিতি, তাহলে তোমার বোন আমার কাছে বিয়ে দিবে।” বাদশাহের ছেলেও তাতে রাজি হয়ে পাল্টা প্রস্তাব করলো, “আর যদি আমি জিতে যাই তাহলে তোমার বোন আমার কাছে…।” হলো কি, বাজির খেলায় জিতে গেলো গোলাপ রাজা। শর্তমতে তো বাদশাহের ছেলের তার বোনকে বিয়ে দিতে হবে গোলাপ রাজার সাথে। খেলাচ্ছলে একটা কথা বলে বসেছে বলে ফেঁসে গেছে; কিন্তু ভাই কোনোভাবেই…

বিস্তারিত
উপরে ফিরে চলো