বই পর্যালোচনা: বাংলা উপন্যাসে সুন্দরবন: জীবন-অন্বেষার স্বতন্ত্র দলিল

সুন্দরবন বিষয়ক বই সংগ্রহ শুরু করেছিলাম সেই করোনার সময় থেকে। সেই সময় ফেসবুকভিত্তিক একটা Xerox Copy’র বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান বই বাজারে কাছে এই বইটা দেখে, ভেতরে কী আছে না দেখেই অর্ডার দিয়ে দিয়েছিলাম। কারণ এতো বিশাল সূচিপত্র যে, তাদের পক্ষ থেকেও বোধহয় ছবি তোলা হয়ে উঠেনি।

বইটা হাতে পেয়ে পড়তে অবশ্য একটু দেরি হয়। তবে পড়তে বসার পর বুঝতে পারি, এটা আসলে বই হিসেবে ‘বই’ নয়, এটা একটা গবেষণাপত্র। যা গবেষক শেখ রাজওয়ানুল ইসলাম, ভারতের নদীয়ার কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধীনে পি-এইচ.ডি. ডিগ্রীর জন্য তৈরি করেছিলেন। সেই গবেষণাপত্রই সম্ভবত যেরক্স কপিতে একটু মিনিফাই করে বই আকারে বাইন্ড করা হয়েছে।

আমি যেহেতু সুন্দরবন বিষয়ে একটু সর্বভূক পর্যায়ে ছিলাম/আছি, তাই বইটা পড়তে আমার কোনো বাধা ছিলো না। কিন্তু গবেষণাপত্র হিসেবে যেমনটা খটমট হতে পারে বলে ভেবেছিলাম, বাস্তবে মোটেই তা মনে হয়নি। একেবারে প্রবন্ধগ্রন্থের মতোই সুন্দর সাবলীল ভাষায় লেখা গবেষণাপত্র এটি।

একেবারে ভৌগোলিক পরিচিতি হয়ে, ইতিহাস ছূঁয়ে জনজীবন পরিচিতির মাধ্যমে সাহিত্যে প্রবেশ। লৌকিক দেবতা, মন্ত্র আচার সংস্কার, জাদু বাস্তবতা, মানুষের জীবনসংগ্রাম, আদিম প্রবৃত্তি, ভাষার গ্রন্থনা— কী নেই এতে! কমপক্ষে ৩২টা বইকে তিনি ব্যবচ্ছেদ করেছেন বিভিন্ন অধ্যায়ে অধ্যায়ে।

তিনি সুন্দরবনকেন্দ্রীক সাহিত্য বিশ্লেষণ করতে গিয়ে শুধু সাহিত্যের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেননি— একেবারে ভৌগোলিক বৃত্তান্ত, ইতিহাস, পরিসংখ্যান, গ্রামীণ জীবনালেখ্য— সব খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে সংগ্রহ করে সেগুলোকে মূর্ত করে তুলেছেন। আমার পক্ষে এতোগুলো বই সংগ্রহ করা কিংবা পড়ে শেষ করা হয়তো সম্ভব হবে না। তবে এই একটা বইতে আমি সবগুলো বইয়ের নির্যাস পেয়েছি বহুলাংশে।

বইটাতে মুদ্রণপ্রমাদ খুবই নগন্য। যেরক্স কপি তৈরির সময় বেশ কিছু সাদা পাতা ভিতরে রয়ে গেছে, যা মূল গবেষণাপত্রের ত্রুটি নয়। যেরক্স প্রিন্ট করতে গিয়ে কোনো পাতা বাদও পড়েনি অবশ‍্য। ১ জুলাই ২০১৩-তে প্রকাশিত ২৯৮ পৃষ্ঠার গবেষণাপত্র কিংবা বইটি সুন্দরবন বিষয়ক পাঠক/গবেষকেদের অবশ্যপাঠ্য হওয়া উচিত বলে আমি মনে করি।

বাংলা উপন্যাসে সুন্দরবন: জীবন-অন্বেষার স্বতন্ত্র দলিল
শেখ রেজওয়ানুল ইসলাম
Xerox Copy ৳৩৩০/- [টাকা] দিয়ে কিনেছিলাম (২০২১)

– মঈনুল ইসলাম

মন্তব্য করুন

আপনার ইমেইল প্রকাশ করা হবে না

আপনি এই HTML ট্যাগ এবং মার্কআপগুলো ব্যবহার করতে পারেন: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

*