কর্মক্লান্তি থেকে পালাতে – পাহাড়ের উল্টো পিঠে : শেষ পর্ব

জুরভারং পাড়ার বাসিন্দার জুমঘরে চাঁদনি রাতে পোকামাকড়ের সাথে ঘরবসতি আর সানথিয়াম সাইতারের (ঝরণার) উপরে উঠার শেষ গল্প…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : দ্বিতীয়াধ্যায় : পর্ব ১

প্রথমাধ্যায়: অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান : প্রথমাধ্যায় থানচি থেকে ভাগ্যক্রমে তিন্দু, আর সেখান থেকে ভাগ্যক্রমে তিন্দুর অভিজ্ঞ চেয়ারম্যানের দিকনির্দেশনায় আমাদের অজানা লেকের সন্ধান লাভ (কাল্পনিক মানচিত্রে অবশ্য), এবং একজন গাইড নুং চ মং পাওয়া গেছে। সাথে রয়েছেন ওদিকে যাওয়া আরেকজন পাহাড়ি থং প্রি মুং। সুতরাং দুজন গাইডসহ আমরা তিনজন – আমি, রাসেল আর প্রভা, তিন্দু…

বিস্তারিত

অফ-ট্র্যাক বান্দরবান ২০১২ (কিস্তি ৯)

গত রাতে রাসেলের অবস্থা পর্যালোচনা-পূর্বক, কারবারির কথা শুনে আবুবকর পরিস্থিতির স্বার্থে একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাঁর নেয়া সেই সিদ্ধান্ত যে আমাদেরকে আমাদের নিয়তির পরম আশ্চর্য অংশে নিয়ে যাবে, ঘুণাক্ষরেও জানতাম না। আবুবকর আমাদের গন্তব্য বদলেছেন। গত রাতেই কারবারির থেকে পথ জেনে নিয়ে ফিরতি পথ ধরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। রাসেলের পায়ের এই অবস্থা নিয়ে আমাদের কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে…

বিস্তারিত

অফ-ট্র্যাক বান্দরবান ২০১২ (কিস্তি ৮)

আমরা প্রচন্ড উচ্চতায় দীর্ঘ পথ বেয়ে রুমানা পাড়ায় উঠে যখন প্রচন্ড ক্লান্ত, তখন আবুবকর ঘোষণা করলেন তাঁরা দুটো ঝরণা দেখতে যাবেন, কে কে যাবে? “আমরা” বলতে যে, কামরুলকেও যোগ করা হচ্ছে, এটা নিশ্চিত; কারণ আমরা তিনজন ছাড়া কামরুলকে নিয়েই এই পথে ট্রেক করার পরিকল্পনা ছিল আবুবকরের। আর আমি তখন নিজের চিত্তের উপর বাজি ধরে রাজি…

বিস্তারিত

অফ-ট্র্যাক বান্দরবান ২০১২ (কিস্তি ৭)

  হতাশায় যখন নেমে আসছি বেতকাঁটায় আটকে আটকে, তখন মোটেই ভালো লাগছিল না আমার। নিচে নেমে এসে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকলাম আমরা। হতাশাটা আমি নাকিবের মাঝেও দেখতে পাচ্ছি। কিন্তু যতক্ষণ শ্বাস, ততক্ষণ আঁশ। দলনেতা আবুবকর একটা সূক্ষ্ম পথ যেন দেখতে পেলেন। সাথে সাথে নির্দেশ দিলেন দুই গাইডকে। নির্দেশনামতো, গাইডরা আলোচনা করতে গেল ঐ দুই পাহাড়ির সাথে,…

বিস্তারিত

অফ-ট্র্যাক বান্দরবান ২০১২ (কিস্তি ৬)

অন্ধকারের পথ ধরে আমরা চলছি কোনো এক অজানা পাড়ার সন্ধানে, কেউ জানিনা, আদৌ আছে কি নেই। পাড়া না পেলে অনেকটা পথ আবার ফিরে গিয়ে আস্তানা গাড়তে হবে নদীর বাঁকে। এমন সময়… আবুবকর চিৎকার করে বললেন,পাড়া, পাড়া। পাড়া আছে এখানে। সাথে সাথে মরুভূমির মধ্যে পানির কূপ পাবার মতো সবার মনে কী যে অনাবিল আনন্দ ছেয়ে গেল,…

বিস্তারিত

অফ-ট্র্যাক বান্দরবান ২০১২ (কিস্তি ৪)

রাসেলের বাম পায়ের পাতায় ব্যথা করছে। সম্ভবত তার পা বাঁকা হয়ে কোথাও পড়েছে, তাই ব্যাথা করছে। কিন্তু সে হাঁটতে পারছে, তাই আমাদের পরিকল্পনা ভেস্তে যাবার সম্ভাবনা নেই। আমরা আমাদের প্ল্যানেই থাকলাম। গাইড দুজনকে অনুসরণ করে আমরা একটা ত্রিপুরা পাড়ায় পৌঁছলাম। পাড়াটার নাম বিকাশ বলেছিল, কিন্তু লিখে রাখিনি তখন। বগামুখ থেকে নেমে এসে আমরা এই পাড়ার…

বিস্তারিত