কর্মক্লান্তি থেকে পালাতে – পাহাড়ের উল্টো পিঠে : পর্ব ১

ট্রেইলের শুরুতেই বিপত্তি – খাল পানিতে টইটুম্বুর, তাই উঁচু পাড় ধরে এগোনো ছাড়া কোনো গত্যান্তর নেই। সেই উঁচু পাড়ের কাছে গিয়ে থমকে দাঁড়াতে হলো। খাড়া ঢাল নেমে গেছে পানিতে, আর সামনেই ঘন ঝোঁপ। আর বেশি সামনে এগোলে পাড় ভেঙে সোজা পানিতে পড়তে হবে। এতো এতো ঢল যে, ওপাড়ে যাওয়ারও উপায় নেই। তাছাড়া বর্ষার কোনো প্রস্তুতিই আমাদের…

বিস্তারিত

সেন্ট মার্টিন ভ্রমণ ২০১৪ (২)

« আগের পর্ব আমরা যখন সেন্ট মার্টিন পৌঁছে প্রথম দিন অতিবাহিত করা শেষ, তখনও রাস্তায় রয়েছে ঘুরবাজের হেকটিক ভ্রমণ দল। টেকনাফে, বিজিবি তাদের ট্রলার ছাড়ার অনুমতি দিল না, তারপর অনেক কাকুতি-মিনতি করে তারা যখন যাত্রা করবার অনুমতি পেল, তখন আঁধার নেমেছে চরাচরে… নাফ নদীতে… বঙ্গোপসাগরে… সূর্য অস্ত যাবার কিছুক্ষণ আগে টেকনাফে পৌঁছালো আমাদের ঘুরবাজ দল।…

বিস্তারিত

জলপ্রপাতের খোঁজে – ছোট বোয়ালিয়া আর মালিখোলা

~ খইয়াছড়া ঝরণা ~ “রশিটা টেনে ধরেন, আপনার টানেই ও’ আসবে…” কথাটা ছুঁড়ে দিলেন কামাল ভাই, তুহিন ভাইয়ের উদ্দেশ্যে। রশিতে ঝুলে আছি আমি, নিচে খইয়াছড়া ঝরণার পানি বয়ে যাচ্ছে। বিয়ার গ্রিল্‌সের মতো করে রশির উপর শরীর রেখে এক পা ঝুলিয়ে সামনে এগোনোর চেষ্টা করছি। কিন্তু রশিটা দুলছে… একটু বেশিই দুলছে… ২০১৩ জুলাই ১ | সকাল…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : দ্বিতীয়াধ্যায় : পর্ব ৫

« অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান : প্রথমাধ্যায় « আগের পর্ব তিন্দু থেকে পায়দল জিন্না পাড়ার পাশের ঔলাওয়া পাড়ায় রাত্রিযাপন শেষে পাহাড় বেয়ে পথচলা। সামনে পরপর দুইটা পাহাড় ডিঙাতে হবে অজানা লেকের কাছে যেতে হলে। একটা পাহাড় ডিঙিয়ে জিহ্বা বের করে এসে যখন রুনাজন পাড়ায় একটু প্রশান্তি খুঁজছিলাম, তখনই আমাদের জন্য ‘বাঁশ’ নিয়ে অপেক্ষা করছিল দ্বিতীয়…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : প্রথমাধ্যায় : পর্ব ৭

« আগের পর্ব পায়দল থানচি থেকে নাফা খুম রওয়ানা, পথ-প্রদর্শক, মানে গাইড হলো খইশামু মারমা; হাঁটা পথ এনে তুললো নৌকায়, আর সেই নৌকা এসে ভিড়লো পদ্মমুখে। ফুরিয়ে যাওয়া তেল ভরে নিতে গিয়ে নৌকা যখন ফুরফুরে মেজাজে চলার কথা, তখন কয়েকজন লোক আমাদেরকে এই গাইড নিয়ে যেতে মানা করতে থাকলেন বেশ জোরেশোরে। মহা বিপদে পড়লাম! নাকিব…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : প্রথমাধ্যায় : পর্ব ৪

সেনাবাহিনী ৬টার সময় থানচির পথ বন্ধ করে দিলেও ঈশ্বরের অনেক কৃপায় আমরা ছাড় পেলাম। কিন্তু মনের আনন্দে এসে ধরা পড়লাম বলিপাড়া বিজিবি ক্যাম্পে। ৯জন ছেলের সাথে একটা মেয়ে বিশেষ সন্দেহজনক এবং ঘোলাটে ব্যাপার। সেই ঘোলাজল পরিষ্কার করবার দায়িত্ব ছিল খুদ দুবারাহ’র উপর, কিন্তু সে যখন জানালো তার গার্জিয়ানরা সব এ্যামেরিকায়, তখন আর কোনো পথ খোলা…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : প্রথমাধ্যায় : পর্ব ৩

ভ্রমণের মাসখানেক আগে থেকে আমার আর বন্ধুদের দীর্ঘ অধ্যবসায়, ২০ ফেব্রুয়ারি রাত থেকে ৯জনের অবিরাম যাত্রা পথ, এবং শেষমেষ প্রধানমন্ত্রীর বান্দরবান আগমনহেতু আমাদের মূল উদ্দেশ্য বগালেক-রুমা-পথ বন্ধ থাকায় থানচির দিকে ১০জনের দলটার যাত্রার সিদ্ধান্তটা আমারই ছিল। থানচি যাবার পথ বন্ধ হয়ে যায় সন্ধ্যা ৬টায়, সূর্য অস্ত যায় সন্ধ্যা ৬টায়; আর আমরা যখন অনেক ঝামেলা উৎরিয়ে,…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : প্রথমাধ্যায় : পর্ব ২

শহীদ দিবস-আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস-একুশে ফেব্রুয়ারি-সাপ্তাহিক ছুটির দিন, সেদিকে বিন্দুমাত্র ভ্রুক্ষেপও নেই: আমরা ১৪জনের তিনটে দল একত্রে একটা মোটামুটি ধাঁচের বাসে করে চলেছি বান্দরবান, উদ্দেশ্য রুমা হয়ে বগা লেক এবং সাকা হাফং: কিন্তু প্রধানমন্ত্রী বান্দরবান যাবেন বলে রুমা-বগা বন্ধ করে দেয়ায় বিকল্প পরিকল্পনা করতে হলো মুহূর্তের মধ্যে। এদিকে ড্রাইভার ব্যাটা মিসাইলের গতিতে গাড়ি চালাচ্ছে, চিৎকার করে…

বিস্তারিত

অজানা লেকের অভিযানে বান্দরবান ২০১৩ : প্রথমাধ্যায় : পর্ব ১

গভীর রাত, তবে ঘুটঘুটে অন্ধকার নয়। আকাশে শুক্লপক্কের চাঁদ। কিন্তু চাঁদনী রাতের মহিমায় কালিমা লেপে পাড় এক মাতাল ঘুরে বেড়াচ্ছে ঘরের চারপাশময়। ছোট্ট একটা ঘরে গুটিশুটি দিয়ে ১০জন, তার মধ্যে একজন আবার ‘মেয়ে’। হঠাৎই… মাতালটা দরজার ফাঁক গলে ভেতরে ঢুকিয়ে দিলো ধারালো একখান দা… “ট্যুর ক্যানসেল করা হোক। এতো ঝামেলা করে এতো হিসাব নিকাশ করে…

বিস্তারিত

ভ্রমণ ২০১২ : শস্য-শ্যামলা উত্তর বাংলার টিউবওয়েলের মুখে (শেষ)

« আগের পর্ব আমরা বাংলাদেশের সর্বউত্তর সীমান্তে বঙ্গমাতার শীর চুমে ফিরেছি আবার তেঁতুলিয়ায়। ফিরে দেখি আমাদের ভ্যানওয়ালারা অপেক্ষা করছে। বেচারারা আয়ের আশা ছাড়তে পারছে না। কিন্তু ও ব্যাটা অটোওয়ালা লাগালো বাগড়া: ভাই তিনশ’ ট্যাকায় অয় না, আপনেরাইতো দেকলেন, কদ্দুর পত। আমরা আমাদের মিডলম্যান ভ্যানওয়ালার দিকে তাকালাম, কিন্তু শেষ পর্যন্ত বুঝলাম, একটু বাড়িয়ে দিয়েই শান্তি আনতে…

বিস্তারিত

ভ্রমণ ২০১২ : শস্য-শ্যামলা উত্তর বাংলার টিউবওয়েলের মুখে (প্রস্তুতি)

এই প্রস্তুতি “ভ্রমণ ২০১২ : শস্য-শ্যামলা উত্তর বাংলার টিউবওয়েলের মুখে” নামক ভ্রমণের প্রস্তুতি। যার পূর্ণাঙ্গ বিবরণ হলো: পর্ব ১, পর্ব ২, এবং পর্ব ৩-এ। যারা এই ভ্রমণের বিবরণ পড়েছেন, তারা জেনে গেছেন, এই ভ্রমণ ছিল আমাদের এপর্যন্ত করা সব ভ্রমণের মধ্যে সবচেয়ে সর্বনিম্ন খরচের ভ্রমণ: জনপ্রতি মাত্র ৳১৮৫০। বোঝাই যাচ্ছে এটা সম্ভব হয়েছিল সরকারি ডাকবাংলো’য়…

বিস্তারিত

ভ্রমণ ২০১২ : শস্য-শ্যামলা উত্তর বাংলার টিউবওয়েলের মুখে (২)

« আগের পর্ব আমরা সাড়ে চারশো কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে যে বাংলোয় থাকার নিশ্চিত অভিপ্রায়ে এসেছি এই সর্বদক্ষিণের উপজেলা তেঁতুলিয়ায়, সেই বাংলোর গেটে দাঁড়িয়ে নির্বিকারভাবে কেয়ারটেকার বলছে: ‘আমাকে তো কিছু জানাননি ইউএনও সাহেব।’ আরেফিনের কপাল কুঁচকে গেল, কোঁচকালো আমাদেরও। সাথে সাথে আরেফিন ফোন করলো ইউএনও-কে। নেতা বলে কথা, পরিচয় দিয়ে ফোনটা ধরিয়ে দিলো কেয়ারটেকারের কানে। কিছুক্ষণের…

বিস্তারিত

ভ্রমণ ২০১২ : শস্য-শ্যামলা উত্তর বাংলার টিউবওয়েলের মুখে (১)

“ধুত্তোর [গালি], এতো কম টাকায় ট্যুর, ক্যামনে কী?” – আরেফিনের উষ্মা শুনে বিশ্বাস হতে চাইছিল না, এটা সম্ভব হয়েছে! বাংলাদেশের ভিতরে দীর্ঘতম দূরত্ব অতিক্রম করলাম আমরা এপর্যন্ত সবচেয়ে কম খরচে।   পরিকল্পনাটার শুরু হয়েছিল ফেসবুকের একটা ফ্যানপেজ দেখে, দেখে নাকিব পাগল হয়ে যায়। তথ্যসূত্র হিসেবে জুটলো সামহোয়্যারইনব্লগের একটা ব্লগপোস্ট^। গুগল করতেই বেরিয়ে এলো আরো বেশ…

বিস্তারিত

মন্দের ভালোয় নরম গরম সিলেট ভ্রমণ ২০০৭ ৩/৩

মন্দের ভালোয় নরম গরম সিলেট ভ্রমণ ২০০৭: প্রথম পর্ব | দ্বিতীয় পর্ব সিলেট শহর-পথে শুরু হলো নতুন অন্তর্দ্বন্ধ। এখন গাড়িতে দুই পক্ষ অবস্থান করছে, দুই পক্ষই অপরাপর পক্ষকে ভাবছে বিপদজনক। তাই শুরু হলো নতুন নাটক। আমি ভাবছি, সিলেট শহরে যেহেতু পণ্ডিত বাদলের ব্যবসাক্ষেত্র, তাই পরিচিত লোক দিয়ে আমাদের জন্য পিটুনি-ফাঁদ তৈরি করে রাখতে পারে। তাই…

বিস্তারিত

মন্দের ভালোয় নরম গরম সিলেট ভ্রমণ ২০০৭ ২/৩

« আগের পর্ব ঘোড়াশালেই আমাদের গাড়িটা গিয়ে উঠে পড়লো একটা আইসক্রিমের ত্রিচক্রযানের উপর। কোনো রকমে নিজেদেরকে নিয়ে যখন গাড়ি পালাতে উদ্যত, তখন সামনে পথ আটকালো ট্রাফিক সার্জেন্ট। গাড়ি থামতেই দুই বন্ধু নেমে গেলো ব্যাপারটার দফারফা করার জন্য। শুরুতেই সার্জেন্টকে উৎকোচ সাধলো দুজনে। এরই ফাঁকে আইসক্রিমওয়ালাকে পঞ্চাশ টাকা দিয়ে বিদায় করে দিলো পণ্ডিত বাদল, যাতে ব্যাপারটা…

বিস্তারিত